Wednesday, 09 September 2015 19:35

জগন্নাথপুরে আবার ডাকাতি Featured

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, জগন্নাথপুর :
জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের নারিকেলতলা গ্রামে সৌদি প্রবাসীর বাড়িতে দুঃসাহসিক ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। বুধবার ভোররাতে নৌকাযোগে ৮/১০ জনের সংঘবদ্ধ ডাকাতদল সৌদি প্রবাসী আলাউদ্দিনের বাড়িতে ঢুকে পরিবারের লোকজনকে অস্ত্রেরমুখে জিন্মি করে নগদ টাকা সৌদি রিয়াল, স্বর্ণালংকার, মুঠোফোন ও একটি নৌকা লুট করে প্রায় ৫ লক্ষ টাকার মালামাল নিয়ে যায়। এসময় ডাকাতরা গৃহকর্তা সহ পরিবারের লোকজনকে মারধর করে। গৃহকর্তা আলাউদ্দিনের ছেলে আলী হোসেন জানায়, ১৫ দিন আগে তার বাবা সৌদি আরব থেকে দেশে এসেছেন।
মঙ্গলবার রাতে প্রতিদিনের মতো খাওয়া ধাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ি। শেষ রাতে একদল ডাকাত ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে পরিবারের লোকজনকে জিন্মি করে সবকিছু নিয়ে যায়। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ গ্রামবাসীকে অবহিত করেছি। রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নারিকেলতলা গ্রামের বাসিন্দা আবুল কালাম জানান, ডাকাতির ঘটনার খবর পেয়ে সকালে গিয়ে দেখি সৌদি প্রবাসী আলাউদ্দিনের ঘরের সবকিছু লুট করে নিয়ে গেছে ডাকাতদল। তিনি জানান, ওই বাড়িটি গ্রামের উত্তর পাশে আলাদা থাকায় ডাকাতরা নৌকাযোগে এসে নির্বিঘেœ ডাকাতি করে চলে যায়।
জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি আমাদের জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে দেখছি। 
অবশেষে ডাকাতির মামলা নিল পুলিশ :
জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হবিবনগরে ব্যবসায়ীর বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় অবশেষে ডাকাতির মামলা নিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরির্দশন করে ডাকাতির মামলা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেন। পরে ডাকাতদের হামলায় আহত ছমির উদ্দিন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ১২/১৫জনের বিরুদ্ধে জগন্নাথপুর থানায় ডাকাতির অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। শনিবার দিবাগত রাতে একদল ডাকাত জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হাবিবনগরের বাসিন্দা জগন্নাথপুর বাজারের একতা অটো রাইস মিলের মালিক ফয়েজ উল্যার বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়। কিন্তুু পুলিশ ঘটনাটি ডাকাতি হিসেবে মামলা না নিয়ে চুরির মামলা নেয়ার অপচেষ্ঠা চালায়। এনিয়ে কয়েকটি স্থানীয় দৈনিক পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশিত হলে সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল মোমিন ঘটনাস্থল পরির্দশন করে জগন্নাথপুর থানার ওসিকে ডাকাতির মামলা নেয়ার নির্দেশ দেন। জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) খান মোহাম্মদ মাইনুল জাকির বলেন, বাদির অভিযোগ মামলা হিসেবে রের্কড করা হয়েছে। তদন্ত করে আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।